সাইফকে নিয়ে ফের দুঃসংবাদ

স্পোর্টস ডেস্ক :

করোনা হানা দিয়েছে টাইগার শিবিরেও। শ্রীলঙ্কা সফরকে সামনে রেখে করা করোনা পরীক্ষায় বাংলাদেশ দলের তরুণ ওপেনার সাইফ হাসান এবং ট্রেনার নিক লি ‘পজিটিভ’ হিসেবে ধরা পড়েন।

সাইফের করোনা ধরা পড়ার পর তাকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়। সেখানে স্বাভাবিক চিকিৎসা প্রক্রিয়া চলেছে। করোনা পজিটিভ হিসেবে ধরা পড়ার এক সপ্তাহ পর আরও একবার পরীক্ষা করানো হয়েছে এই ওপেনারের। এবারও এসেছে দুঃসংবাদ।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে, দ্বিতীয়বারের কোভিড-১৯ টেস্টেও পজিটিভ হিসেবে ধরা পড়েছেন সাইফ হাসান। ফলে তাকে নিয়ে দুশ্চিন্তা বাড়ল আরও।

অথচ টাইগার দলের ট্রেনার নিক লি সাইফের সঙ্গেই পজিটিভ হওয়ার পর রোববার করোনামুক্ত হয়েছেন। আশা করা হচ্ছিল, বাংলাদেশ দলের তরুণ ওপেনারও তার মতোই নেগেটিভ হবেন। কিন্তু পরীক্ষায় সুসংবাদ মেলেনি।

বিসিবি অবশ্য শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের জন্য সাইফকে ছাড়াই ২৭ সদস্যের প্রাথমিক দল বেছে নিয়েছিল। ফলে এখনই করোনামুক্ত হয়ে গেলেও দলে জায়গা করে নেয়া কঠিন ছিল ২১ বছর বয়সী ওপেনারের।

তবে সাইফকে নিয়ে বড় পরিকল্পনা আছে বাংলাদেশ দলের। বয়স কম। আর ঘরোয়া ক্রিকেট আর ‘এ’ দলে পারফর্ম করেই যেহেতু এসেছেন, লম্বা সময় তার ওপর আস্থা রাখার কথা টিম ম্যানেজম্যান্টের।

গত বছর ভারত সফরে টেস্ট দলে ডাক পেয়েছিলেন সাইফ। ওই সফরে একাদশে জায়গা করে নিতে না পারলেও চলতি বছর রাওয়ালপিন্ডিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে অভিষেক হয়ে যায় ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানের। করোনায় সব বন্ধ হওয়ার আগে ফেব্রুয়ারিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টেও খেলেছেন।

নিজেকে এখনও প্রমাণ করতে পারেননি আন্তর্জাতিক মঞ্চে। দুই টেস্টে করেছেন মাত্র ২৪ রান। সর্বোচ্চ ১৬। তবে মাত্র শুরু সাইফের। সুস্থ থাকলে শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার সম্ভাবনা ছিল তার।

অবশ্য এই শ্রীলঙ্কা সফর শেষতক হবে কি না, তা নিয়েই তৈরি হয়েছে সংশয়। কোয়ারেন্টাইন ঝামেলায় দুই বোর্ডের মধ্যে বোঝাপড়া হচ্ছে না। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে সাফ জানিয়ে দেয়া হয়েছে, শ্রীলঙ্কায় ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন করা সম্ভব নয়। অন্যদিকে লঙ্কান বোর্ডও অনড়। কোয়ারেন্টাইন সময়সীমাও কিছুতেই ছাড় দেবে না তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *