২ কোটি টাকা আত্মসাৎ, কালবের ম্যানেজার গ্রেফতার

বাগেরহাট প্রতিনিধি ;

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে স্বাক্ষর জাল করে শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লীগের (কালব) টাকা আত্মসাতের মামলায় ম্যানেজার ফরিদ উদ্দিনকে (৩২) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (৩০ আগস্ট) গভীর রাতে মোড়েলগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে ফরিদকে গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে ওই রাতেই ১ কোটি ৯৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে ম্যানেজার ফরিদসহ পাঁচজনকে আসামিকে করে মামলা করেন কালবের মোড়েলগঞ্জ উপজেলা শাখার চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম হাওলাদার।

মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) দুপুরে গ্রেফতার ফরিদ উদ্দিনকে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১ এ আদালতে সোপর্দ করলে বিচারক সমির মল্লিক তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

গ্রেফতার ফরিদ যশোরের মনিরামপুর উপজেলার পারখাজুরা গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে। তিনি শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লীগের (কালব) মোরেলগঞ্জ শাখায় ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন, মোরেলগঞ্জের মা-বাবার ঋণ কলেজের অধ্যক্ষ সাবিনা ইয়াসমিন (৪৫), বিএসএস দাখিল মাদরাসার সহকারী সুপার মো. মুঈন উদ্দিন হিরু (৩৯), রওশন আরা স্মৃতি মহিলা ডিগ্রি কলেজের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক শেখ নজরুল ইসলাম (৪৫) ও স্থানীয় বাসিন্দা মো. আবুল কালাম আজাদ মল্লিক।

মামলা সূত্রে জানা যায়,  ২০২০ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে পরিচালনা পরিষদ ও ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের স্বাক্ষর জাল করে ১ কোটি ৯৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছে কালব মোরেলগঞ্জ শাখার ম্যানেজার ফরিদ উদ্দিন ও অন্যান্য আসামিরা। আত্মসাৎ করা সব টাকা রূপালী ব্যাংকের মোরেলগঞ্জ উপজেলার বারইখালী শাখার এসটিডি-১৩ নং সঞ্চয়ী হিসাব থেকে তোলা হয়েছে। এই টাকা আত্মসাৎ করতে প্রায় ৪০ জন সদস্যের জাতীয় পরিচয়পত্র, কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের সিল ও স্বাক্ষর জাল করা হয়েছে। রূপালী ব্যাংক বারইখালী শাখা থেকে রেজিস্ট্রারে এন্ট্রি ছাড়া কিছু চেকবইও সংগ্রহ করেছে চক্রটি। সমিতির রেজুলেশন খাতাও নকল করেছে চক্রটি।

কালব মোরেলগঞ্জ শাখার চেয়ারম্যান ও এসিলাহা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালাম হাওলাদার বলেন, ২০২০ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ব্যাংক হিসাব পর্যালোচনা করে দেখা যায় কালব মোরেলগঞ্জ শাখা থেকে তিন কোটি ৬৬ লাখ ১৯ হাজার টাকা শিক্ষকদের মাঝে ঋণ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে জাতীয় পরিচয়পত্র, কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানের সিল ও স্বাক্ষর জাল করে ১ কোটি ৯৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন ম্যানেজার ও অন্য আসামিরা। বিষয়টি কালবের কেন্দ্রীয় কমিটিকে অবহিত করলে তারা কয়েকবার অডিট করেন। অডিটে বিষয়টির সত্যতা পাওয়ায় কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেষে আমি মামলা করেছি।

মোড়েলগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সুফল সরকার বলেন, আব্দুস সালাম হাওলাদারের অভিযোগের ভিত্তিতে নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি ফরিদ উদ্দিনকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *